Home / প্রশ্নোত্তর / সকল প্রশংসা আল্লাহ্‌র কেন ? জেনে নিন যুক্তির মাধ্যমে
সকল প্রশংসা আল্লাহ্‌র কেন
সকল প্রশংসা আল্লাহ্‌র কেন

সকল প্রশংসা আল্লাহ্‌র কেন ? জেনে নিন যুক্তির মাধ্যমে

*আসসালামু আলাইকুম* আজকের বিষয়ঃ সকল প্রশংসা কেন আল্লাহর ? আলহামদুলিল্লাহ্‌ অর্থাৎ সকল প্রশংসা আল্লাহ্‌র। কিন্তু অনেকের মনে প্রশ্ন জাগে কেন সকল প্রশংসা আল্লাহ্‌র হবে। ভালো কাজের প্রশংসা যেহেতু আল্লাহ্‌র খারাপ কাজের প্রশংসাও তো উনার হওয়া উচিত। কিন্তু কেন খারাপ কাজের প্রশংসা আল্লাহ্‌কে দেওয়া হয়না। এই বিষয়ের সমস্ত কনফিউশন আজকে আমরা লজিক্যাল একটি গল্পের মাধ্যমে দূর করব। তো দেরি না করে এখনি পড়ে ফেলুন গল্পটি।

বন্ধুরা সবাই ক্লাসে বসে গল্প করছি। ৪র্থ ঘন্টায় মুশফিক স্যারের ক্লাস। সময় হয়েই এসেছে। তিনি নাস্তিক। স্রষ্টায় বিশ্বাসী না।

আরও পড়ুনঃ ভাগ্য বলতে কিছু আছে ? কিভাবে ভাগ্যের পরিবর্তন করা যায় ?

স্যার ক্লাসে প্রবেশ করেই বললেন,

স্যার: কেমন আছো সবাই?

আমরা সবাই একসাথে : আলহামদুলিল্লাহ।

স্যার: আলহামদুলিল্লাহ কে কে বলেছে দাড়াও।

আমরা একে একে ৫ জন দাড়ালাম।

স্যার:  এর অর্থ কি শামিম?

শামিম: ভয়ে ভয়ে ‘ সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্য’।

স্যার: আমাদের সমাজে চুরি,ডাকাতি,অন্যায় আছে?

শামিম: জ্বি স্যার।

স্যার: তাহলে সকল ভালো কাজের প্রশংসা যদি আল্লাহর হয়, তাহলে খারাপ কাজের ভাগ কেন তার না?

ক্লাসে পিনপিন নীরবতা।

আরও পড়ুনঃ বদনজর সম্পর্কে ইসলাম কি বলে ? জেনে নিন অবাক করা বিষয়

আমি; শুধু সকল ভালো কাজের প্রশংসা আল্লাহর জন্য। খারাপ কাজের ভাগ তার না।

স্যার: আমি সেটাই বলতে চাচ্ছি,  ভালো কাজের ক্রেডিট তার কিন্ত খারাপ কাজের কেন নয়?? কাম টু বি লজিক ম্যান,

আমি: স্যার, ধরেন কোন এক সমুদ্রে জাহাজ ডুবে গেল। কোন ডুবুরি তাদের উদ্ধার করতে পারছে না।

তখন আপনি বললেন যে আমি এমন একটা যন্ত্র বানিয়ে দিচ্ছি যা দিয়ে তোমরা সহজেই লোকদের উদ্ধার করতে পারবে। এবং তা বানিয়েও দিলেন।

একজন ডুবুরী আপনার যন্ত্রটি নিয়ে অনেককে বাচাল। হঠাত দেখল যে পানিতে ডুবে যাওয়া লোকগুলোর মধ্যে তার শত্রুও আছে। সে তাকে বাচালতো না, বরং তাকে লাথি মেরে ফেলে আসল।

এখন আপনার কাছে আমার প্রশ্ন,

আপনার তৈরি যন্ত্র দিয়ে এতজনের প্রান বচল। এর ক্রেডিট কি আপনি পাবেন না??

স্যার: হ্যা, অবশ্যই।

আমি: কিন্ত একজন ডুবুরী আপনার যন্ত্রটী দিয়ে একজনকে বাচাতে পারত কিন্ত ইচ্ছে করেও সে বাচাই নি। এটা কি অন্যায় না?

স্যার: হ্যা।

আমি: কিন্ত এই অন্যায়ের ভাগ কি আপনার?

স্যার: কখনোই না। এটা পুরোটাই ডুবুরির দোষ।

আমি: ঠিক একইভাবে আল্লাহ্‌ আমাদের হাত,পা,বিবেগ,বুদ্ধি দিয়েছেন। তাই আমাদের সকল ভালো কাজের ক্রেডিট তার। কিন্ত পাপের ভাগ না। এইগুলো আমাদের নিজেদেরই দোষ।

সেইদিন আর ক্লাস হলো না। যাবার আগে স্যার নিচু স্বরে বলে গেলেন।

” I will see you”

(লেখার ভুলত্রুটি মার্জনীয়)

আরও গল্প পেতে আমাদের ilmuddin – ইলমুদ্দিন ফেসবুক পেজে লাইক করুন।

Check Also

জুম্মার নামাযের নিয়ম নিয়ত

জুম্মার নামাযের নিয়ত ও নিয়ম বিস্তারিত অনেকেই জানেন না

শুক্রবার হল মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের জন্য সাপ্তাহিক ঈদের দিনের মত। এই বিশেষ দিনে মুসলমানগণ জুম্মার নামাযে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.